১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার,রাত ৮:৫১

কয়রা সিদ্দিকীয়া বহুমুখী ফাজিল মাদ্রাসায় ঈদ পুনর্মিলনী

প্রকাশিত: জুন ১৮, ২০২৪

  • শেয়ার করুন

 

কয়রা প্রতিনিধিঃ কয়রা উপজেলার ঐতিহ্যবাহি দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কয়রা সিদ্দিকীয়া বহুমুখী ফাজিল (ডিগ্রী) মাদ্রাসার সূবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়। গত মঙ্গলবার (১৮ জুন) সকাল ১০ টায় মাদ্রাসা চত্বরে মাদ্রাসা অ্যালামনাই অ্যাসেসিয়েশন এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। পুনর্মিলনী উদযাপন কমিটির আহবায়ক প্রাক্তন শিক্ষার্থী বড়বাড়ি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান  শিক্ষক মোহাঃ হুমায়ুন কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কয়রা-পাইকগাছার সংসদ সদস্য মোঃ রশীদুজ্জামান। বিশেষ অতিথি ছিলেন কয়রা উপজেলা পরিষদের সদ্য নির্বাচিত চেয়ারম্যান জিএম মোহসিন রেজা। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় অর্থ ও পরিকল্পনা উপ-কমিটির সদস্য সাইফুল্লাহ আল মামুন, খুলনা জেলা পরিষদের সদস্য আব্দুল্যাহ আল মামুন লাভলু, পাইকগাছা উপজেলা পরিষদের সদ্য নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান আঃ ওহাব বাবলু  ও দৈনিক দেশের কন্ঠ পত্রিকার সম্পাদক মোঃ আলমগীর হোসেন। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন পুনর্মিলনী উদযাপন কমিটির প্রধান উপদেষ্টা কপোতাক্ষ কলেজের সাবেক অধ্যাপক আ.ম.ম আঃ মালেক। মাদ্রাসার  প্রাক্তন ছাত্র মোঃ ফরহাদ হুসাইনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা শফিকুল ইসলাম নিজামী, মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি এস এম জিয়াদ আলী, উত্তরচক কামিল মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ মাওলানা মোস্তফা আঃ মালেক, মাদ্রাসার সাবেক শিক্ষক মাওলানা আবুল কালাম আজাদ, মাওলানা হাবিল উদ্দিন ঐহিদী,মাদ্রাসার মাহফিল কমিটির সভাপতি কয়রা সদর ইউনিয়নের  প্যানেল চেয়ারম্যান এস এম লুৎফর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ইউপি সদস্য আবু হাসান, পুনর্মিলনী উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব এনামুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা শাহাজান সিরাজ, মাদ্রাসার সাবেক শিক্ষার্থী অধ্যাপক গাউছুল আজম, মাওলানা আবু বকর ছিদ্দিকী, শেখ নুরুল হুদা, আবুল বাশার, মাওলানা ওলিউল্লাহ, মাওলানা মিজানুর রহমান, রুহুল কুদ্দুস, আঃ গফুর,, সাইফুল্লাহ আল হেলাল, আব্দুল্লাহ আল মামুন তুহিন, মোস্তাফিজুর রহমান, রোকেয়া খাতুন, উম্মেহানি, আশিকুজ্জামান, শাহিন শেখ, হাফেজ সালাউদ্দিন মুকুল, হাফেজ আবু হানিফ,রবিউল ইসলাম, টিএম সাইফুল্লাহ,ইউনুস আলী,ইমদাদুল হক ফরহাদ হোসেন, রোকনুজ্জামান প্রমুখ। আলোচনা শেষে ক্রেষ্ঠ প্রদান, স্মরনীকা প্রকাশের পর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে মাদ্রাসার শিক্ষক সহ সাবেক শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
  • শেয়ার করুন