১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার,রাত ৯:১২

নাফ নদীতে মিয়ানমারের যুদ্ধজাহাজ দেশের সার্বভৌমত্বের উপর হুমকি

প্রকাশিত: জুন ১৬, ২০২৪

  • শেয়ার করুন

নাফ নদীতে মিয়ানমারের জান্তা সরকারের যুদ্ধজাহাজের অবস্থা করছে। এটি বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের ওপর বড় হুমকি বলে মনে করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আজ রোববার (১৬ জুন) দুপুরে ঠাকুরগাঁও শহরের কালীবাড়ি এলাকায় নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এই মন্তব্য করেন।

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা মনে করি, এই সরকার দুর্বল একটি সরকার, যাদের ওপর জনগণের ম্যান্ডেট নাই। এটা একটা নতজানু সরকার। বিদেশের ওপর নির্ভর করে তাঁরা ক্ষমতায় টিকে আছে। যে কারণে তাঁরা মিয়ানমার সম্পর্কে একটা কথা পর্যন্ত বলতে সাহস পায় না। মিয়ানমার থেকে গুলি হচ্ছে, মারাও গেছে লোক। অথচ এ নিয়ে সরকার কোনো কথা বলে না। এটা আমরা তীব্রভাবে নিন্দা জানাই। আমরা মনে করি, এই ইস্যুতে সরকার পদত্যাগ করা উচিত।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন যেতে যেভাবে গোলাগুলি করা হচ্ছে, তা বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের ওপর প্রচণ্ড রকম হুমকি। এমনকি সেন্টমার্টিন দ্বীপ থেকে সাগরে দেখা যাচ্ছে, মিয়ানমারের বড় বড় যুদ্ধজাহাজ। দুর্ভাগ্যের কথা হচ্ছে, বর্তমানে অনির্বাচিত সরকার, দখলদারি সরকার, যারা জোর করে ক্ষমতায় বসে আছে, এদের মধ্যে দেশের সার্বভৌমত্ব নিয়ে কোনো চিন্তা নেই।

ফখরুল আরও বলেন, আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি সমুদ্র সীমানার যে পথ—ওই পথে আমরা যাতায়াত করতে পারছি না। সেখানে একটা ভিন্ন দেশ থেকে গোলাগুলি করে যাতায়াত বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। অথচ সরকার এখন পর্যন্ত একটা সিরিয়াস স্টেটমেন্ট আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে তুলে ধরতে পারেনি। আমাদের সার্বভৌমত্বের প্রতি আঘাত হানছে, আর তারা (সরকার) বলছে, “আমরা দেখছি।”’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘এই সরকারের প্রতি আমাদের আস্থাটা কী করে থাকবে? এই দেশের জনগণ সরকারের কাছে আশা করে তাঁদের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করবে, স্বাধীনতা রক্ষা করবে, সেখানে মিয়ানমার ইস্যুতে কোনো রকম কথায় আমরা শুনতে পাচ্ছি না।

  • শেয়ার করুন